ইন্ডিকেটর বেজড স্ট্রাটেজি পার্ট ১

ইন্ডিকেটরের ধরন অনুযায়ী কয়েকটি ইন্ডিকেটর দিয়ে একত্রে একটি স্ট্রাটেজি তৈরি করা যায়। উদাহরণস্বরূপ আজ আমি আপনাদের দু-একটি সিম্পল কিন্তু প্রফিটেবল স্ট্রাটেজির কথা শেয়ার করব।
 
১। মুভিং এভারেজ স্ট্রাটেজি
এই স্ট্র্যাটেজি তে আমরা তিনটি মুভিং এভারেজ ব্যবহার করব।
# ইএমএ ৫ ক্রসওভার লাইন
# এস এম এ ২০ ট্রেন্ট কন্টিনিউ লাইন
# এস এম এ ৫০ মার্কেট ট্রেন্ডলাইন
প্রথমে আমাদের দেখতে হবে মার্কেট প্রাইস মার্কেট ট্রেন্ড লাইন অর্থাৎ এসএমএ ৫০ এর উপর অথবা নিচে কোথায় আছে। যদি উপরে থাকে তাহলে ধরে নিতে হবে মার্কেট শর্টটার্ম আপট্রেন্ডে আছে। এখন যখন মার্কেট এসএমএ ২০ থেকে সাপোর্ট নিয়ে আপট্রেন্ড কন্টিনিউ করে এবং একই সাথে ইএমএ ৫ যদি এসএমএ ২০ কে উপরে ক্রস করে তাহলে বাই এন্ট্রি নিতে হবে।
আর মার্কেট প্রাইস মার্কেট ট্রেন্ড লাইন অর্থাৎ এসএমএ ৫০ এর নিচে থাকে তাহলে ধরে নিতে হবে মার্কেট শর্টটার্ম ডাউনট্রেন্ডে আছে। এখন যখন মার্কেট এসএমএ ২০ রেজিস্টেন্স থেকে রিজেক্ট হয়ে ডাউনট্রেন্ড কন্টিনিউ করে এবং একই সাথে ইএমএ ৫ যদি এসএমএ ২০ কে নিচের দিকে ক্রস করে তাহলে ছেল এন্ট্রি নিতে হবে।
ছবিতে দেওয়া হয়েছে।
 
রুলস
১। মার্কেট ট্রেন্ড লাইন অর্থাৎ এসএমএ ৫০ ও মার্কেট প্রাইস দেখে বুঝতে হবে মার্কেট আপট্রেন্ড ডাউনট্রেন্ড অথবা সাইডওয়ে আছে। সাইডওয়ে থাকলে ব্রেকআউট এর অপেক্ষা করতে হবে।
২। মার্কেট এসএমএ ২০ থেকে বাউন্স করলেই শুধুমাত্র এন্ট্রি নেয়ার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।
৩। ইএমএ ৫ ও এসএমএ ২০ ক্রসিং এ এন্ট্রি নিতে হবে।
৪। মার্কেট ডাবল টপ ও ডাবল বোটম করলে ট্রেন্ড রিভার্সালের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।
Share
Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *